Header Ads

  • সর্বশেষ আপডেট

    মাদ্রাসার সৌভাগ্য হয়নি



    - ভাই কি মাদ্রাসায় পড়েছিলেন?
    - না ভাই, সেই সৌভাগ্য হয়নি...
    - এত বড় দাঁড়ি রাখছেন আবার প্যান্ট এতো উপরে পড়ছেন তো তাই বললাম!
    - ভাই আমাদের রাসূল (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) এর কখনোই একমুষ্ঠির কম পরিমাণ দাঁড়ি ছিলো না এবং তাঁর কাপড় কখনোই টাখনুর নিচে নামেনি। তিনি বলেছেন দাঁড়ি লম্বা রাখতে ও গোঁফ খাটো করতে আর টাখনুর নিচে কাপড় পরলে আল্লাহ কিয়ামতের দিন সেই ব্যক্তির দিকে দয়ার দৃষ্টিতে তাকাবেন না এবং সে অংশ জাহান্নামের। (বুখারি)
    - তবুও ভাই, যা দিনকাল পড়ছে দাঁড়ি রাখলে মানুষ কত কি ভাবে আর তাছাড়া মেয়েরাও পছন্দ করে না, বিয়ে করতে চায় না!
    - ভাই, ধর্মপ্রচারের কারণে অপছন্দ করলেও আরবের বড় বড় মুশরিক আর কাফিররা পর্যন্ত সেই (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) দাঁড়িওয়ালা মানুষটাকে ভালোবেসে আল-আমিন মানে সত্যবাদী ডাকত! আর বিয়ে? তাঁর অমায়িক আচার-ব্যবহার এবং সততায় মুগ্ধ হয়ে সে সময়কার সম্ভ্রান্ত বংশের বিত্তশালী এবং সুন্দরী হযরত খাদিজা রাদিআল্লাহু আনহা সেই লম্বা দাড়িঁওয়ালা মানুষটাকেই প্রথম বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছিলেন এবং বিয়ে করেছিলেন.. আর আলহামদুলিল্লাহ্ আজকাল অনেক মেয়েই আছে যারা দাঁড়ি, টাখনুর উপর কাপড় ছাড়া আপনারে বিয়েই করবে না! আসল কথা এসব করবেন আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্য, লোকের কথায় কি আসে যায়রে ভাই!
    - কিন্তু ভাই এসব যে মানতেই হবে এমনতো কথা নেই! এগুলোতো সুন্নাত!
    - ভাইয়া আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তায়ালা স্পষ্ট করে আমাদের বলেছেন - “রাসূল তোমাদেরকে যা দিয়েছেন, তা গ্রহণ কর এবং যা দেননি যা থেকে নিষেধ করেছেন, তা থেকে বিরত থাক এবং আল্লাহকে ভয় কর।” সূরা হাশর আয়াত নাম্বার:- ০৭
    আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তায়ালা আরো বলেন- “আর তিনি নিজ প্রবৃত্তি থেকে কোনো কথা বলেন না। তা তো ওহি, যা তাঁর প্রতি প্রত্যাদেশ হয়।” সূরা আন নাজম আয়াত নাম্বার:- ৩-৪
    রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন: যে ব্যাক্তি আমার আনুগত্য করে সে আল্লাহ্‌রই আনুগত্য করে এবং যে ব্যাক্তি আমার অবাধ্যাচরণ করে সে আল্লাহ্‌রই অবাধ্যাচরণ করে। (বুখারি ও মুসলিম)
    - ভাই, ইচ্ছাতো হয়ই দাঁড়ি রাখতে, প্যান্ট টাখনুর উপরে পরতে কিন্তু মাল্টি ন্যাশনাল কম্পানি বা ভালো জায়গাগুলোতে এসব পছন্দ করে না, ভালো জব পাওয়া যায় না ..
    - যে চাকরিতে আল্লাহর আদেশ এবং আমার রাসূলের সুন্নাহকে হেয় করে দেখা হয় আর সেটা পালনে বাধা দেয়া হয় আমি কেন সেই চাকরির গোলামি করব ভাই?? এই পৃথিবীতে আল্লাহ্ তাঁর পছন্দের বান্দাদের রিযকের অভাব রাখেন নাই.. হয়তবা আয়টা একটু কমই হবে কিন্তু আল্লাহর বারাকাহ্ থাকবে অফুরন্ত। আজ এই মূহুর্ত থেকে নিয়্যত করেন এই মুখে যাতে আর কোনো রেজারের আচঁড় না পড়ে আর আজই টাখনুর নিচে প্যান্টের বাড়তি অংশটুকু কমিয়ে নিবেন..
    - ইনশা আল্লাহ্ ভাই দুআ করবেন..
    - ভাই সত্যি বলতে এসব ব্যাপারে আমার দুআর চাইতে আপনার ইচ্ছা শক্তির প্রয়োজনটা অনেক অনেক বেশি! আল্লাহ্ আমাদের প্রতি অসন্তুষ্ট হন আর আমাদের গুনাহগুলোর কাউন্টিং তখনই শুরু হয় যখন আমরা আল্লাহর কোন আদেশ জানার পরও ইচ্ছাকৃতভাবে যেগুলোকে এড়িয়ে যাই এবং কেয়ারই করি না! আল্লাহ্ সুবহানাহু ওয়া তাআলা যেন আপনাকে এবং আমাকে তাঁর এবং তাঁর রাসূলের প্রতিটা নির্দেশ পূঙ্খানুপূঙ্খভাবে মেনে চলার তৌফিক দেন..

    Post Top Ad

    Post Bottom Ad